শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

‘খেলা হিসাবে ক্রিকেট নিজেই একটা সমস্যা’


জগলুল হায়দার : খেলা হিসাবে ক্রিকেট নিজেই একটা সমস্যা । মূলত এইটা বাজেরকম ভাবে একটা ফিক্সিং ফ্রেন্ডলি গেম। ফলে জুয়ারিরা বিস্তর মুনাফার লোভে এই খেলার পিছে লাগে। আর সেই মুনাফার ফাঁদে অনেক অনেক বড় বড় তারকা ক্রিকেটারও নৈতিকভাবে খুব ছোট হয়ে যায়। টাকার কাছে দেশপ্রেম আর মানুষের উজাড় করা ভালোবাসা তখন তুচ্ছ হয়। দীর্ঘদিন ধইরাই এই পাকচক্রে ঘুরতেছে ক্রিকেট।

দক্ষিণ আফ্রিকার ক্যাপ্টেন হ্যানসি ক্রোনিয়ের অনাকাংখিত আত্মহত্যা কিম্বা সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ানের বিশ্বরেকর্ডধারি মোহাম্মদ আশরাফুলের পরিণতিও এই পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটাইতে পারে নাই। আর এই না পারার সর্বশেষ শিকার এর নাম সাকিব। সাকিব আল হাসান।

সাকিব আমগো ক্রিকেটের সচাইতে উজ্জল ব্র্যান্ড নাম। ক্রিকেট দুনিয়ার (তা যতো ছোটই হোক) নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডার। আমরা তাঁর খেলার মুগ্ধ দর্শক। কিন্তু তাঁর ব্যাপারে আইসিসির সাম্প্রতিক সিদ্ধান্তে যেসব বিষয় ধর্তব্যের মধ্যে নেয়া হইছে তাতে আমি ব্যক্তিগতভাবে আহত হইছি। অন্তত সাকিবের মতো অভিজ্ঞ আর জনগণের অকুণ্ঠ ভালোবাসায় পূর্ণ একজন খেলোয়াড়ের কাছ থিকা এইটা আশা করা যায় না। বাঙালি এমনিতেই ষড়যন্ত্র তত্তে বিশ্বাসী। সেই ষড়যন্ত্র তত্ত বিভিন্ন ইস্যুতে বরাবরই নির্মিত হয় এক গাদা পার্সেপশনের উপ্রে। সেই পার্সেপশনে আবার মজুদ থাকে অজস্র মিথ্যা। কিন্তু সেই মিথ্যা অই পার্সেপশনের কেয়ারফে পরিণত হয় মিথে। এই ক্ষেত্রেও অনেকটা তাই হইতেছে। বরং সাকিবের প্রতি মানুষের অধিক ভালোবাসা আর সাম্প্রতিক ধর্মঘট কাণ্ড এই পার্সেপশনের মিথকে আরো গাঢ়া করতেছে। আমি প্রতিভাবানদের খুব পছন্দ করি।

সাকিব প্রতিভাবান। তাই সে আমার খুব পছন্দের এক ক্রিকেটার। আমার এই পছন্দ আর ভাললাগা থিকা তাকে নিয়া আমি একাধিক ছড়া লিখছি বিভিন্ন দৈনিকে। হয় তো সেই কারণেই সাকিবের জন্য আমার একটু বেশি খারাপ লাগতেছে। কিন্তু আইসিসির তথ্যে এই সংক্রান্ত সাকিবের ভূমিকায় আমি একে ষড়যন্ত্র তত্ত দিয়া ব্যাখ্যাযোগ্য মনে করতেছি না। অনৈতিকতা কুনো ভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়। তাই আমি মনে করি এই ইস্যুতে সাকিবের ভূমিকা যথার্থ ছিল না। ফলে মাইনা নিতে কষ্ট হইলেও সাকিবের বিপক্ষে নেয়া এই সিদ্ধান্তকে ষড়যন্ত্র তত্ত দিয়া নাকচ করতে পারতেছি না।

সাকিবের এই নিষেধাজ্ঞায় সবচাইতে বড় ক্ষতিটা কিন্তু সাকিবের নয় বরং সেই ক্ষতি হইল উদীয়মান বাংলাদেশি ক্রিকেটের। ক্ষতি হইল ক্রিকেট বিশ্বের। আর সাকিবের তো হইলই। আশা করুম সাকিব এবং বাংলাদেশ কাঁধে কাঁধ মিলায়া এই ক্ষতি দ্রুত পুষায়া নিবো ইনশাআল্লাহ। শুভকামনা সাকিব। শুভকামনা বাংলাদেশের ক্রিকেট।

[বয়ান চলতি কথনরীতিতে লেখা]

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য