শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

শীতের দিনগুলো: মারুফ তাকী


তামাদ্দুন সাহিত্য:
কুয়াশার খেলা, শৈত্যপ্রবাহ, ঠাণ্ডা পানির ছোঁয়া মনে পড়ে যায় শৈশবের কথা; ফযরের ওয়াক্তে বাড়িতে কাটানো সময়গুলো, তাহাজ্জুদের সময় মাদ্রাসায় জাগা দিনগুলো; মনে পড়তেই হারিয়ে যাই দূর অতীতে, ভাবনারা যেখানা খেলা করে, আনন্দরা যেখানে দৌড়ে চলে।
কুয়াশায় ঘেরা রাস্তা দিয়ে হেটে বেড়ানোর কথাও ভুলার না, একহাত সামনে কী আছে তা-ই দেখা যায় না- সে অবস্থায় সাইকেল চালানোর মজাও বলার মত না, দলবেঁধে শীতের সময় আগুন ধরিয়ে দাঁড়িয়ে থাকার কথাও স্মৃতির পাতা থেকে সরে যায় নি আজও, হুজুরের বেতের বাড়ির কথাও ভুলি নি, মনে পড়ে সব-ই কিন্তু ফিরে আসে না কিছু।
-----
এখন শীত আসে নামে, শহরের দেয়াল তাকে আসতে দেয় না বাস্তবে, যখন মানবযন্ত্র ও আধুনিক যন্ত্রের কাজ থেমে যায় তখন শুধু কুয়াশা এসে ধোয়ার মত কিছুক্ষণ থেকে না পেরে চলে যায় আবারো গ্রামে, যে গ্রাম তাদের আগলিয়ে রাখে বুকে।
শহরে পিঠার ধোয়া আকাশের মেঘের কাছে পাঠানোর মত অবস্থা নেই, ফু ফু করে দলবেঁধে ধোয়া ছাড়ার মত দল-ও চোখে পড়ে না এই ইট-পাথরের টাউনে।
গ্রামের শিশিরভেজা ধানের শীষ, সবুজ গাছ বেয়ে টপটপ করে পড়ার মুগ্ধকর দৃশ্য-ও আর নজরে আসে না।
----
শহর! আমায় ফিরিয়ে নিয়ে যাও সেই গ্রামে, যেখানে সোনালি অতিত বাস করে, মনমাতানো দৃশ্য অপেক্ষা করে, ভালোবাসায় সিক্ত করে। আমি থাকতে চাই না তোমাদের পঁচা-নর্দমার গর্ভে, ইট-পাথরের আবদ্ধ শহরে৷ এখানে মুক্ত বাতাস নেই, নেই মনে রাখার মত সকাল। দয়া করো! আমার উপর রহম করো হে শহর! তোমায় পরিবর্তন আনবে না কেউ, এখানে কোন পরিবেশবান্ধব লোক নেই, আমিও না। আমাদের ছাড়পত্র দেও, চলে যাই আবারো গ্রামে।" নষ্ট করার যে, আরো কত জায়গা বাকি রয়ে গেছে ভুবনে!"

তুষারধারা আ/এ ঢাকা
২৫/১১/১৯ইং


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য