শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

চমক দেখাতে চায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

তামাদ্দুন ডেস্ক: ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে চমক দেখাতে চায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। দুই সিটিতে দুজন মেয়র ছাড়াও ৬০টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রার্থী দিয়ে মাঠে রয়েছে দলটি। দুর্নীতি, পরিবেশ দূষণ, যানজটসহ নাগরিক দুর্ভোগ কমানোকে প্রাধান্য দেয়ার পাশাপাশি তরুণ সমাজকে মাদক থেকে দূরে রাখতে নানা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে দলটি।

সিটি নির্বাচনের ঢামাডোলে বড় দুদল আওয়ামী লীগ-বিএনপির বাইরে নানানভাবে অবস্থান জানান দিচ্ছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশও। দলের প্রার্থীরা সকাল-সন্ধ্যা চষে বেড়াচ্ছেন নিজেদের নির্বাচনী এলাকা। ভোট চাইছেন দলীয় প্রতীক হাত পাখায়।
ঢাকা দক্ষিণ সিটির ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আবদুর রহমান। নেতাকর্মী নিয়ে গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। দিচ্ছেন নানান প্রতিশ্রুতি। তিনি বলেন, ‘বায়ুদূষণ, মশার উপদ্রব, জলদূষণ; মানুষের অনেক দুর্ভোগ। এই দুর্ভোগ যেন লাঘোব করতে পারি। দুর্নীতি আমাদের দ্বারা হবে না। এ জন্যই আমাদের সবচেয়ে বেশি ভোট দেবে। আমরাই বিজয়ী হবো।’

দলের শীর্ষ নেতা চরমোনাই পীর মনে করেন এবারের নির্বাচনে চমক দেখাবে তাদের দল। চরমোনাই পীর সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম বলেন, আমাদের মূল লক্ষ্যই হলো দুনিয়াতে শান্তি, আখেরাতে মুক্তি। ঢাকা সিটি সর্বত্র মানুষের যে চাহিদা, সেটা পুরাপরি বাস্তবায়নের লক্ষেই, আমরা প্রার্থীতা দিয়েছি। এখন যদি সুষ্ঠ নির্বাচন হয়, তবে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশর হাতপাখা প্রতীকে বিজয়ী হবে।’

ঢাকা উত্তর সিটিতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মেয়র প্রার্থী শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলছেন নির্বাচিত হলে প্রধান কাজ হবে দুর্নীতিমুক্ত নগর ভবন প্রতিষ্ঠা।

তিনি বলেন, ‘আমাদেরকে ভোট দিলে নগরবাসীর যে বাজেট সেই বাজেটের পুরোটা সেবা তারা পাবে। আমরা দৃঢ়ভাবে আশা করছি আমরা নগর ভবনে গেলে ঢাকা উত্তরকে দূষণ মুক্ত, যানজট মুক্ত, আধুনিক একটি স্মার্ট নগরী হিসেবে গড়ে তুলবো।’

এবারের দুই প্রার্থীই ২০১৫ সালে ঢাকার দুই সিটিতে দলের মনোনীত প্রার্থী ছিলেন। সেবার দুপুর নাগাদ ভোট বর্জন করেও তাদের অবস্থান ছিল তৃতীয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য