শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

‘মুভ ফাউন্ডেশন সম্পর্কে যা রটেছে, তার বিরাট অংশ ভুল নয়’

মনযূরুল হক : মুভ ফাউন্ডেশন (MOVE Foundation) থেকে আমি রিজাইন দিয়েছি গত বছর আগস্ট মাসের ২৯ তারিখে (২৯-০৮-২০১৯)। অর্থাৎ, প্রায় ০৫ মাস হয়ে গেছে। স্বাভাবিকভাবেই তখন থেকে সেই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অধমের কোনও সংযোগ নাই। দৈহিক, আর্থিক, সাংগঠনিক—কোনও প্রকারেই না। এমনকি আসার পরে একবার প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটও খুলে দেখি নি।

প্রতিষ্ঠানটিতে মোট ১৩ মাস ২০ দিন জব করেছি। মাদরাসা কোঅর্ডিনেটর হিসেবে পদবি ছিল প্রোগ্রাম এসোসিয়েট। বিভিন্ন প্রোগ্রামের জন্য দাওয়াত করার সময় যারাই আপত্তি করেছেন, কিংবা জানতে চেয়েছেন, প্রত্যেককে বলেছি : আপনি নিজেই আসেন এবং সরাসরি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেন। দীনের দাওয়াতের জন্য হলেও তো আসতে পারেন। যারা তখন এসেছেন, বিভিন্ন প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করেছেন, অধমের জানামতে এমন কেউ নেই, যিনি সেখানকার কোনও কার্যক্রম দেখে দীন-বিরোধী বলে আখ্যা দিয়েছেন। অন্তত তাদের কেউ আমাকে বলেন নি।

প্রতিষ্ঠাতা সাইফুল হক ভাইকে বরাবর দেখেছি সৎ ও নামাজি। কাজকর্মও পরিচ্ছন। সেখানে বিভিন্ন গবেষণামূলক ও সরকারী কাজে অধমের বিপুল অভিজ্ঞতা অর্জন হয়েছে—যা অন্য কোথাও সম্ভব ছিল কি না জানা নেই। এই জন্যে সাইফুল ভাই’র কাছে বিরাট ঋণী।

কিন্তু দু’দিন আগে একটা ভিডিও দেখেছি, যেখানে সাইফুল ভাই’র একটি বক্তব্য সংযোজন করা হয়েছে, যদি সেই বক্তব্য তার হয়ে থাকে তাহলে তা অত্যন্ত গর্হিত এবং তার তীব্র বিরোধিতা করি। ‘কুরআন সংবিধান’ সংক্রান্ত তার যেই বক্তব্য ভিডিওটিতে রয়েছে, তা তার মুখ থেকে না এর আগে কখনও শুনেছি, না তার এই চিন্তার কথা ঘুণাক্ষরেও টের পেয়েছি। বরং আমার উপস্থিতি আছে, এমন কোনও প্রোগ্রামে আমি নিজে তো ভালো—অন্য কেউ বলবে, সেটা কখনও সহ্য করতাম না। জবের শেষ দিকে কিছু বিষয়ে তার সঙ্গে মতোবিরোধ হয়েছে, কিন্তু এই ধরনের কথা কখনও শুনিনি। এই জাতীয় বক্তব্যের সম্পূর্ণ দায় তার—আমার না।

মুভ ফাউন্ডেশন সম্পর্কে বহু ধুম্রজাল ছড়িয়েছে, বহু প্রোপাগান্ডা হয়েছে সত্য। কিন্তু ভিডিওতে যুক্ত এই বক্তব্য যদি বানানো না হয়, তাহলে পরোক্ষভাবে হলেও প্রমাণ করছে যে, মুভ সম্পর্কে যা রটেছে, তার বিরাট একটি অংশ ভুল নয়। এবং এটাও প্রমাণ হবে যে, অধমের অগোচরেও বহুকিছু ঘটেছে, যে-সম্পর্কে আমার কোনও ধারণাই ছিল না।

হায়াত-মওতের আল্লাহর হাতে, আল্লাহ চাহে তো মোনাফেকের মতো জীবন নিয়ে পালিয়ে বেড়াবার স্বভাব অধমের নয়; কখনও ছিল না—বন্ধুরা ভালো করে জানেন। অধমের উপর্যুক্ত মনোভাব ও কথাগুলি আশেপাশের যারা থাকেন, তারা তো বটেই; যারা মুভ ছেড়ে আসার পরে নানা সময়ে মুভ সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন, তাদের কাছে গিয়ে গিয়ে সবিস্তারে বলেছি, কারও কাছে একবিন্দুও গোপন করি নি।

আমি নিজেও আমার পূর্বেকার বহু মতের সঙ্গে এখন আর একমত নই। তবে সবসময় ইসলামকে এভাবেই জেনেছি যে, ইসলামের এমন কোনও বিষয় নেই, যা ইনসানিয়াতের খেলাফ, যা ইনসাফের খেলাফ। এবং ইসলাম সে-কারণেই অন্য সকল ধর্ম থেকে শ্রেষ্ঠ। বরং ইসলাম হলো দীন, আর জিহাদ ইসলামের শিখরচূড়া—এ-বিষয়ে পূর্বেও কখনও সন্দেহ ছিল না, এখনও নেই। মুভের প্রোগ্রামেও সে-কথা সমুচ্চ স্বরে বলেছি এবং প্রশাসনের সামনেও উগ্রবাদী বিষয়বস্তু নিয়ে তাদের মিথ্যা প্রচারণার বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অভিযোগ করেছি—যারা সেইসব প্রোগ্রামে ছিলেন, তারা চাক্ষুষ করেছেন।

বিভিন্ন মাদরাসায় মৌলিক পুলিশি আইন, সংসদ, সংবিধান, দুর্নীতি দমন কমিশন, নির্বাচন কমিশন প্রভৃতি বিষয়ক ক্লাস নেওয়ার সময়ও পরিষ্কার বলেছি : এগুলো আমাদের দেশের আইন-কানুন, এটা সঠিক সেটা আপনাদের বলছি না, বরং কেবল জানাতে চাইছি যে, এটাই চলছে, আপনাদের এগুলো জানা উচিত, সচেতন হওয়া উচিত; যদি কোনও বিষয় ভুল থাকে, ইসলামের সঙ্গে সাংঘর্ষিক থাকে, তবে তা সংশোধনের উদ্যোগ গ্রহণ করা আপনাদের দায়িত্ব; কিন্তু না-জানলে বুঝবেন কী করে, ওখানে কী আছে?

দেশের শীর্ষস্থানীয় মাদরাসাগুলির মুহতামিম, শাইখুল হাদিস, মুফতি ও মুহাদ্দিসদের সামনে ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে সেসব বক্তব্য উপস্থাপন করেছি। তারা নিজেরা মডিউলগুলো খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখেছেন। এর বেশি আমার আর কী করার ছিল, বলেন?

আমার কষ্টের জায়গাগুলি হলো— ১। যে-কোনও কিছু প্রকাশ করার আগে তো ইমানের দাবি সেগুলো সঠিকভাবে যাচাই করে নেওয়া। কিন্তু যারা অধমের নামে বিভিন্ন কথা প্রচার করছেন, তারা অন্তত আমার বক্তব্য জানতে চাইতে পারতেন এবং আমার কথাও শুনে নিতেন।

২। যেই ছবিগুলো ব্যবহার করা হয়েছে, সেগুলোর বেশিরভাগই মুভ ফাউন্ডেশনের কোনও প্রোগ্রামের নয়; বরং ইদানিং কোথাও ঘুরতে যাওয়ার, কিংবা বর্তমান কর্মস্থলের, কিংবা অন্য কোনও প্রোগ্রামের।

৩। এমন কিছু মানুষকে জড়িয়ে চরমভাবে মানহানিকর কথাবার্তা বলা হচ্ছে, দুয়েকটি প্রোগ্রামে নিরীহ উপস্থিতি ছাড়া যাদের আদতে আর কোনও দোষ নেই। এমনকি কেউ সেখানে অর্থের লোভেও যাননি।

অধমের প্রত্যাশা হলো : দেশের সর্বজনমান্য মুরব্বি আলেমগণ মুভ ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম বিষয়ে যথার্থ খোঁজখবর নেবেন এবং বিভ্রান্তির প্রাচীর সরিয়ে সকলকে সঠিক নির্দেশনা প্রদান করবেন। আমি নিজেও আমার বিষয়টি আমার উস্তাদ ও মুরব্বিদের সামনে ন্যাস্ত করছি, তারাই আমাকে পরামর্শ দিয়ে বাধিত করবেন।

আমাদের সকলের আখের তো আখেরাত—সেই কঠিন সময়টি সুন্দর হোক। আল্লাহ সবাইকে কবুল করুন। আমিন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য