শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

ঢাবি থেকে আজীবন বহিষ্কৃত হলেন যারা

তামাদ্দুন ডেস্ক: ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস ও জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ৬৩ জন শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। গত ২৮ জানুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় এসব শিক্ষার্থীকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়।

এ নিয়ে এই অভিযোগে আজীবন বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীর সংখ্যা দাঁড়াল ৭৮।

বহিষ্কৃত এসব শিক্ষার্থীর তালিকা আজ মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোর প্রাধ্যক্ষদের পাঠিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ৷ সেই তালিকা থেকে আজীবন বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীদের নাম, বিভাগ ও শিক্ষাবর্ষ নিচে তুলে ধরা হলো:

শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র মো. আব্দুল ওয়াহিদ, একই ইনস্টিটিউটের একই শিক্ষাবর্ষের মো. ইছহাক আলী, ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের আনিকা বৃষ্টি, ফিওনা মহিউদ্দিন মৌমি ও মো. মাসুদ রানা ৷

সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের সালমান এফ রহমান হৃদয়, মো. রাকিবুল হাসান, সৌভিক সরকার, মো. মেহেদী হাসান, মো. হাসিবুর রশীদ, মো. মারুফ হাসান খান, একই ইনস্টিটিউটের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ইসরাত জাহান ছন্দা।

ইংলিশ ফর স্পিকারস অব আদার ল্যাংগুয়েজেস বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের সাফায়াতে নূর সাইয়ারা নৌশিন ও একই শিক্ষাবর্ষের ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ভালনারেবিলিটি স্টাডিজের জি এম রাফসান কবির।

পরিসংখ্যান বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের মো. আবু জুনায়েদ সাকিব ৷ তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের মোস্তাফিজ-উর-রহমান, একই বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মো. তৌহিদুল হাসান আকাশ৷

রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের মো. লাভলুর রহমান লাভলু, একই বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শরমিলা আক্তার আশা, জাকিয়া সুলতানা, জেরিন হোসাইন ও আবির হাসান হৃদয় ৷

অর্থনীতি বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের সামিয়া সুলতানা, সিনথিয়া আহম্মেদ ও জান্নাত সুলতানা ৷ আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের আমরিন আলম জুটি, একই বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মো. আশরাফুল ইসলাম আরিফ ও আল আমিন পৃথক এবং ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের নওশীন আফরিন মিথিলা ৷

টেলিভিশন ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মেহেজাবিন অনন্যা ও মো. শাদমান শাহ ৷ একই বর্ষের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের মোছা. আফসানা নওরীন ঋতু ৷ ইতিহাস বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ফাতেমা আক্তার তামান্না৷

বাংলা বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের এম ফাইজার নাঈম, একই বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের জিয়াউল ইসলাম ৷ ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের তাজুল ইসলাম সম্রাট, নুরুল্লাহ ও সাদিয়া সুলতানা ৷ ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের মো. মাসুদ রানা ও মো. শাবিরুল ইসলাম, একই বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ফাতেমা তুজ জোহরা ৷

ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের নাফিসা তাসনিম বিন্তী, একই বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ইফতেখারুল আলম জিসান ৷ বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের শাশ্বত কুমার ঘোষ, একই বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের সাদিয়া সিগমা ৷

ফিন্যান্স বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শেখ জাহিদ বিন হোসেন ইমন ও মো. আশেক মাহমুদ জয়। ফার্মেসি বিভাগের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের মো. মোহায়মেনুল ইসলাম, একই বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মো. সাইদুর রহমান ও ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের আব্দুর রহমান ৷

আইন বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের সুবহা লিয়ানা তালুকদার ও সালমান হাবীব আকাশ, একই বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের আজলান শাহ ফাহাদ ৷ মনোবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের বেলাল হোসেন ও মো. মশিউর রহমান, একই বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মোরশেদা আক্তার ও তানজিনা সুলতানা ইভা ৷

স্বাস্থ্য অর্থনীতি বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মো. মোহাইমিনুল রায়হান ফারুক ৷ পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের আবুল কালাম আজাদ ৷ সংস্কৃত বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিহাব হাসান খান ৷ যোগাযোগ বৈকল্য বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের মো. আবু মাসুম ৷ ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শাহাৎ আল ফেরদৌস ফাহিম ৷ মার্কেটিং বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের মাহবুব আলম সিদ্দিকী সম্রাট ৷

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য