শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

সাহাবিদের সহায়তা ছাড়া কুরআন হাদিস বুঝা অসম্ভব: আল্লামা মামুনুল হক


নিজস্ব প্রতিনিধি: তামাদ্দুন। সাহাবায়ে কেরামের সহায়তা ছাড়া পরিপূর্ণভাবে দীন বুঝা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন জামিয়া রাহমানিয়ার শাইখুল হাদিস আল্লামা মামুনুল হক।

তিনি বলেন, কিছু মানুষ সরাসরি কুরআন হাদিস বুঝতে চান, তারা সাহাবায়ে কেরামের সূত্র নিতে চান না, এটা স্পষ্টত ভ্রান্তি।

তিনি আরও বলেন, প্রতিটি দামি বস্তুর সঙ্গে একটা ক্যাটালগ থাকে। যাতে বস্তুটির ব্যবহার সহজ হয়। কুরআন হাদিস বুঝতে সাহাবায়ে কেরামগণ হলেন ক্যাটালগ বা নির্দেশিকা। এই নির্দেশিকা ছাড়া পূর্ণাঙ্গরুপে কুরআন হাদিস বোঝা অসম্ভব।

আজ দক্ষিণ বঙ্গের ঐতিহ্যবাহী মাদরাসা জামিআ ইসলামিয়া মারকাযুল উলুম খুলনার বাৎসরিক মাহফিল আল্লামা মামুনুল হক এসব কথা বলেন।

মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা মুহতামিম বিশিষ্ট আলেমে দীন আল্লামা মুফতি গোলাম রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাহফিলে এ বছর মাদরাসা থেকে হিফজ, তাকমিল ও ইফতা সমাপনকারী শিক্ষার্থীদের পাগড়ি প্রদান করা হয়।

মারকাযুল উলুম খুলনার নায়েবে মুহতামিম ও জামিআ ইসলামিয়া দারুল উলুম ঢাকার মুহতামিম মুফতী আবদুল্লাহ ইয়াহইয়ার পরিচালনায় মাহফিলে বিশেষ বক্তা হিসেবে বয়ান পেশ করন দারুল হাবীব মাদরাসা মিরপুর ঢাকার মুহাদ্দিস মুফতি আবদুর রব ফরিদী।

তিনি বলেন, সারা দেশে আজ মুসলিমদের নির্যাতন চলছে। যে ভারত গড়ে দিলেন উলামায়ে কেরাম ও মুসলিমরা, সেখানে আজ তাদের নির্যাতন চলছে। দুই দিনের জন্য ক্ষমতায় এসে নরেন্দ্র মোদি মুসলিমদের তাড়াতে উঠেপড়ে লেগেছে। ইনশাআল্লাহ মুসলিমদের তাড়ানো হলে আমরা বসে থাকবো না।

অনুষ্ঠানে মুফতি গোলামুর রহমান ও মাওলানা রফিকুল ইসলামসহ স্থানীয় অনেক উলামায়ে কেরাম বয়ান পেশ করন।

উল্লেখ্য যে, জামিআ ইসলামিয়া মারকাযুল উলুম খুলনা দেশের এক ঐতিহ্যবাহী মাদরাসা। প্রতিবছর ইলমি এ বিদ্যাপীঠ থেকে অসংখ্য শিক্ষার্থী ইলম অর্জন করে সারা দেশে দীনের খেদমতে ছড়িয়ে যাচ্ছে। প্রতিবছর মাদরাসার বাৎসরিক মাহফিলে এ অঞ্চলের হাজারও মানুষ অংশ নেন। আল্লামা মামুনল হকের আগমন উপলক্ষে এবারও লোকে লোকারণ্য হয়ে উঠে মাদরাসা প্রাঙ্গন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য