শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

হাই হিল থেকে সাবধান!

আমিন মুনশি : ফ্যাশনপ্রেমীদের কাছে হাই হিল বেশ প্রিয়। নিজেকে স্মার্ট আর আকর্ষণীয় দেখাতে অনেক নারীই হাই হিল পরে থাকেন। কিন্তু অস্থিরোগ বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, নিত্য ব্যবহার্য ও প্রয়োজনীয় এই জিনিসটির দিকে ঠিকমতো নজর না দিলে অনেকরকম সমস্যা দেখা দিতে পারে। এতে করে কোমর, পিঠ আর পায়ে ব্যথা তো হবেই সে সঙ্গে অস্থিঘটি ও স্নায়ুর জটিল রোগও হতে পারে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, শুধু দামি জুতা কিনলেই হবে না, হিলের উচ্চতা ও গঠনের দিকেও নজর দিতে হবে। হিল জুতা বেশি উঁচু হলে শরীর নিজের ভারসাম্য রক্ষার জন্য দাঁড়ানোর ভঙ্গিতে কিছু পরিবর্তন করে। তখন শিরদাঁড়ার স্বাভাবিক গড়ন বিঘ্নিত হয়। এর চাপ পড়ে নিতম্ব, পিঠ, পা ও হাঁটুতেও। হাই হিল পরার কারণে পায়ের পাতার ওপর চাপ বাড়ে।

অল্প সময় কিংবা হঠাৎ করে হাই হিল পরলে খুব একটা সমস্যা হয় না তবে যারা নিয়মিত হাই হিল পরেন তাদের শারীরিক ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ৭২ শতাংশ নারী জীবদ্দশার কোনো না কোনো সময়ে হাই হিল পরেন। এদের একটি বড় অংশ বিশেষ অনুষ্ঠানে হাই হিল পরলেও, অনেকেই নিয়মিত তা পরেন। 

দীর্ঘক্ষণ হাই হিল পরে থাকেন এমন নারীরা কাফ মাসেলে যন্ত্রণা, লো ব্যাক পেইন এবং পায়ের পাতায় যন্ত্রণা সমস্যায় ভোগেন। এতে শিরদাঁড়ার আকার বদলে যাওয়ায় ফোরামিনাল স্টেনোসিসের মতো রোগও দেখা দেয়।

এছাড়াও খুব আঁটসাঁট ও ছুঁচালো মুখের জুতা পরলে, অনেক সময় পায়ের পাতার হাড়ের মধ্যে স্নায়ুগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে প্রবল যন্ত্রণারও শিকার হন অনেকে। ডাক্তারি পরিভাষায় যাকে মর্টনস নিউরোমা বলা হয়। এই ব্যথা রোগীকে দীর্ঘদিন ভোগায়। এমনকি আক্রান্তদের অস্ত্রোপচারও করতে হয়।

আপনি কি নিয়মিত হাই হিল পরছেন? তবে সাবধান হোন আজই। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য