শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

প্রবাসীরা দেশে এলে নবাবজাদা হয়ে যান : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আমিন মুনশি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন মন্তব্য করেছেন, প্রবাসীরা দেশে এলে নবাবজাদা হয়ে যান। তারা কোয়ারেন্টাইনে যাওয়ার ব্যাপারে খুব অসন্তুষ্ট হন। পাঁচ তারকা হোটেল না হলে তারা অপছন্দ করেন।

রবিবার (১৫ মার্চ) রাজধানীতে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজে (বিআইআইএসএস) এক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নে এসব কথা বলেন তিনি।

বিদেশফেরতদের বিষয়ে আব্দুল মোমেন বলেন, আমাদের তো দৈন্য রয়েছে। এটা একটা বিশেষ অবস্থা। আমরা যাদের নিয়ে আসি, তাদের হজ ক্যাম্পে রাখছি। এখন আরও কয়েকটা হাসপাতালও জোগাড় হয়েছে।

হজ ক্যাম্পে কোয়ারেন্টাইনে থাকা নিয়ে ইতালিফেরতদের বিক্ষোভ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা খুব অস্থিরতা করেছেন। তারা দেশে আসছেন, কোনো কোয়ারেন্টাইনে যেতে চান না। সঙ্গে সঙ্গে বাড়িতে যেতে চান। আমরা যেখানে তাদের রেখেছিলাম, সেখানে আগেও অন্যদের রেখেছিলাম। কিন্তু তারা তা অপছন্দ করছেন। বাংলাদেশে ফ্ল্যাট বাথরুম, তারা কমোড বাথরুম ব্যবহার করেন। তাই তাদের অসুবিধা হয়েছে। আমরা সেখানে পর্যটন থেকে খাবার দিয়েছি, তারা মনে করেন ফাইভ স্টার থেকে খাবার দেওয়া উচিত। তা দিতে পারিনি। এজন্য তারা অসন্তুষ্ট। তারা মনে করেন এগুলো খুবই নোংরা।

মোমেন বলেন, যেসব দেশে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বেশি, সেসব দেশ থেকে বাংলাদেশে ফ্লাইট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। রবিবার রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে এটা কার্যকর হবে। সরকারের মূল উদ্দেশ্য জনগণকে রক্ষা করা। কয়েকজনের কারণে সাড়ে ১৬ কোটি মানুষ অসুস্থ হোক সরকার তা চায় না। কারণ বিভিন্ন ধরনের দুর্বলতা আছে। সরকার আগে আবেদন করেছিল যাতে যারা প্রবাসে আছেন, তারা আরও কিছুদিন সেখানে থাকেন। কিন্তু তারা সেটা শোনেননি। সে জন্য বাধ্য হয়ে ফ্লাইট বন্ধ করা হয়েছে।

ইউরোপসহ যে দেশগুলো অস্বাভাবিকভাবে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত, সে দেশগুলোর সঙ্গে রবিবার (১৫ মার্চ) দিনগত রাত ১২টার পর থেকে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত যাত্রীবাহী বিমান আসা-যাওয়া বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্যও এ সিদ্ধান্ত প্রযোজ্য হবে। এ সময়ে অন-অ্যারাইভাল ভিসা দেওয়া বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে।

শনিবার (১৪ মার্চ) রাত সাড়ে নয়টার দিকে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এসব সিদ্ধান্তের কথা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, যেসব দেশ আমাদের দেশ থেকে যাতায়াত বন্ধ করেছে আমরা তাদের জন্য একই ব্যবস্থা নিয়েছি। দেশগুলোর মধ্যে- নেপাল, সৌদি আরব, কাতার, কুয়েতসহ অন্য দেশ রয়েছে। কেবল যুক্তরাজ্য থেকে যাত্রীরা আসা-যাওয়া করতে পারবেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য