শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

যে কারনে বিশ্বব্যাপী ছড়ালো করোনা ভাইরাস



তামাদ্দুন ২৪ ডটকম: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যাই বলুক করোনাভাইরাসে খবর দুনিয়াকে সতর্ক করার জন্য চিনের টানা প্রশংসা করেছে এসেছে বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থা বা হু। জানুয়ারি মাসের পুরোটাই হু বলে এসেছে ঠিক সময়ে চিন করোনাভাইরাসের জেনেটিক ম্যাপ প্রকাশ করেছে। কিন্তু হু-র একদল আধিকারিক মনে করছেন ওই ম্যাপ প্রকাশ করতে দেরি করে দিয়েছিল চিন। এমনটাই দাবি করেছে সংবাদসংস্থা।

হু-র একদল আধিকারিক মনে করছেন, চিনে তুমুল সংক্রমণ শুরুর পরপরই দেশের তিনটি সরকারি ল্যাব করোনাভাইরাসের জেনেটিক ম্যাপ বা জেনোম তৈরি করে ফেলে। কিন্তু তা এক সপ্তাহের বেশি চেপে যায় সরকার। এতেই অনেকটা ক্ষতি হয়ে গিয়েছে। বেশকিছু লোকের সাক্ষাতকার ও নথির ভিত্তিতে ওই দাবি করছে হু।


গত ১১ জানুয়ারি চিনের ভাইরোলজিস্ট তাঁর ওয়েবসাইটে করোনাভাইরাসের ওই জেনোম প্রকাশ করে দেন। তখনও পর্যন্ত বিষয়টি চেপে ছিল সরকারি ল্যাব। তার পরই তারা করোনাভাইরাসের জেনেটিক ম্যাপ প্রকাশ করে। শুধু তাই নয় রোগী ও চিকিত্সা সংক্রান্ত তথ্য হু-কে দিতে ২ সপ্তাহের বেশি দেরি করে চিন।


জানুয়ারি মাসে ৬ তারিখে একটি বৈঠকে চিনের বিরুদ্ধে করোনভাইরাস সংক্রান্ত তথ্য না দেওয়ার অভিযোগ করে হু। তাও আবার সেই অভিযোগ করা হয়েছিল চিনা স্বাস্থ্য কর্তাদের সঙ্গে একান্ত বৈঠকে। কিন্তু প্রকাশ্যে চিনের সুনামই করে যাচ্ছিল হু। এমনটাই দাবি করেছে সংবাদসংস্থা। যেসব তথ্য চিন চেপে গিয়েছিল তার মধ্যে রয়েছে মানুষের মধ্যে কীভাবে, কতটা দ্রুত ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ে, এর জন্য দুনিয়ার অন্যান্য দেশের ওপরে কী প্রভাব ফেলতে পারে।


হু-র করোনা সংক্রান্ত টেকলিক্যাল হেড মারিয়া ভন কেরকোভ সংবাদসংস্থাকে জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস সম্পর্কে খুব কম তথ্য নিয়ে আমরা এখন কাজ করছি। এই তথ্য নিয়ে কোনও পরিকল্পনা করা যায় না। এখন যেটা হয়েছে সেটি হল চিনের সরকারি টিভি কোনও খবর যাওয়ার ১৫ মিনিট আগে ওই তথ্য আমাদের হাতে আসছে।


করোনাভাইরাস নিয়ে হু ঠিক মতো কাজ করছে না অভিযোগ তুলে সম্প্রতি সংস্থার সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক চুকিয়ে দিয়েছেন। ৪৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ সাহায্যও বন্ধ করে দিয়েছেন। তবে চিনা প্রসিডেন্ট জানিয়েছেন করোনা গবেষণায় আগামী ২ বছরে ২ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবেন তিনি।

সংগৃহিত

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য