শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

ভারতে করোনা সংকটের আরেক তীব্র রূপ!

ডেস্ক: ভারতজুড়ে এক মহা আতঙ্কের নাম হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। কোনভাবেই তা নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না। রেকর্ডের পর রেকর্ড হচ্ছে করোনা ভাইরাসের। গত একদিনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে দেশটির সোয়া ৬ লাখ মানুষ এবং মৃত্যু হয়েছে ১৮ হাজার মানুষ।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়সূত্রে এনডিটিভি জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ২০ হাজার ৯০৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এতে করে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ২৫ হাজার ৫৪৪ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে ৬০ শতাংশের বেশি তিন রাজ্যের (মহারাষ্ট্র, দিল্লি ও তামিলনাড়ু)। 

একইসময়ে প্রাণহানি ঘটেছে ৩৭৯ জনের। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত ১৮ হাজার ২১৩ জনের মৃত্যু হলো করোনায়। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৯২ লাখের বেশি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। 

এর মধ্যে শুধু জুনেই করোনার শিকার ৪ লাখ ও প্রাণহানি ঘটেছে ১২ হাজার মানুষের। যা মোট সংক্রমণ ও প্রাণহানির প্রায় ৭০ শতাংশ। 

ভারতে প্রাণহানির শীর্ষে বরাবরই মহারাষ্ট্র। যেখানে ১ লাখ ৮৬ হাজার ৬২৬ জন। এরপরই তামিলনাড়ু। এখন পর্যন্ত ৯৮ হাজার ৩৯২ জন করোনার শিকার হয়েছেন এ রাজ্যে। আর রাজধানী দিল্লিতে আক্রান্ত ৯২ হাজার ১৭৫ জনে দাঁড়িয়েছে। 

প্রতিনিয়ত সংক্রমণ ভারতের ৯টি প্রদেশে। তবে গুজরাট, বিহার, উত্তর প্রদেশ, অন্ধ্র প্রদেশ, কর্নাটক, কেরালা ও হরিয়ানার অবস্থা অত্যন্ত নাযুক।  

সংক্রমণ ঠেকাতে প্রথমদিকে সামাজিক দূরত্বের উপর জোর দেয়া হলেও এখন লকডাউনের কোন কড়াকড়ি নেই। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড শুরু হওয়ায় বাজার-হাট, গণপরিবহনে বেড়েছে লোকজনের ভিড়। তাই, প্রতিদিনই আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা। 

তবে আক্রান্তের সংখ্যা রেকর্ড,সংখ্যক হারে বাড়লেও সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যাও স্বস্তি দিচ্ছে ভারতবাসীকে। করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা এক লাখেরও বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় ২০ হাজার ৩২ জন সুস্থ হয়েছেন। যা একদিনে সর্বাধিক সুস্থতার সংখ্যা। এ নিয়ে মোট ৩ লাখ ৭৯ হাজার ৮৯২ জন স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন।

কেএইচ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য