শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

নামাজে 'রব্বানা লাকাল হামদ' বলার উপকারিতা: মাওলানা সাখাওয়াত রাহাত



তামাদ্দুন ২৪ ডটকম: নামাজে রুকু থেকে ওঠার সময় ইমাম ঘোষণা করেন- سَمِعَ اللهُ لِمَنْ حَمِدَهُ (অর্থাৎ, আল্লাহ শোনেন- যে তার প্রশংসা করে)। এ ঘোষণা শুনে কোনো মুমিন কি চুপ থাকতে পারে? পারে না। তাই সাথে সাথে মুমিনও তার রবের প্রশংসায় সচকিত হয়। সে বলে- رَبّنَا لَكَ الحَمْدُ (অর্থাৎ, সকল প্রশংসা তোমারই হে আমাদের রব!)।

এহেন মুহূর্তে কি ফেরেশতারা নিরব থাকবে? না! তারাও আল্লাহর প্রশংসায় সরব হয়। সৃষ্টি হয় অভূতপূর্ব এক দৃশ্যের। আল্লাহ তায়ালা খুশি হন। যে বান্দার তাহমিদ (রব্বানা লাকাল হামদ্ বলা) ফেরেশতাদের তাহমিদের সাথে মিলে যায় তার পূর্বের সব গোনাহ আল্লাহ মাফ করে দেন।

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন-
إِذَا قَالَ الإِمَامُ: سَمِعَ اللهُ لِمَنْ حَمِدَهُ، فَقُولُوا: اللّهُمّ رَبّنَا لَكَ الحَمْدُ، فَإِنّهُ مَنْ وَافَقَ قَوْلُهُ قَوْلَ المَلاَئِكَةِ، غُفِرَ لَهُ مَا تَقَدّمَ مِنْ ذَنْبِهِ.
যখন ইমাম سَمِعَ اللهُ لِمَنْ حَمِدَهُ বলে তোমরা বল- اللّهُمّ رَبّنَا لَكَ الحَمْدُ। কারণ, যার তাহমিদ ফেরেশতাদের সাথে মিলবে তার পূর্বের সব পাপ ক্ষমা করে দেওয়া হবে। (বুখারি শরিফ, হাদিস নং ৭৯৬; মুসলিম শরিফ, হাদিস ৪০৯)

উল্লেখ্য, 'রব্বানা লাকাল হামদ' বাক্যটি চারভাবে বলা হাদিস দ্বারা প্রমাণিত। যথা:
ক. রব্বানা লাকাল হামদ।
খ. আল্লাহুম্মা রব্বানা লাকাল হামদ।
গ. রব্বানা ওয়া লাকাল হামদ।
ঘ. আল্লাহুম্মা রব্বা ওয়া লাকাল হামদ।

লেখক: তরুণ আলেমেদ্বীন ও মাদরাসা শিক্ষক

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য