শিরোনাম

[getTicker results="10" label="random" type="ticker"]

মাওলানা সুলতান আহমাদ কাসেমীর কর্মময় জীবন নিয়ে পিরোজপুর উলামা পরিষদের আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত

মুফতি আব্দুল্লাহ ফিরোজী।।

পিরোজপুর উলামা পরিষদের উদ্যোগে সংগঠনের সদ্য প্রয়াত শুরা সদস্য, গোপালগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী বাঁশবাড়িয়া মাদরাসা এবং ঢাকার লালমাটিয়া মাদরাসার সাবেক মুহাদ্দিস, "সাতকাছেমিয়ার হুজুর" নামে প্রসিদ্ধ প্রবীণ আলেমেদ্বীন মাওলানা সুলতান আহমদ কাসেমী রহিমাহুল্লাহর কর্মময় জীবন নিয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া আজ (০১ সেপ্টেম্বর) বাদ যোহর ঢাকার ইস্টার্ন হাউজিং মাদরাসায়ে ইমদাদুল উলূম মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংগঠনের আমীর উত্তরার জামিয়া ইমাম বুখারীর প্রিন্সিপাল মুফতি ওয়াহিদুল আলমের সভাপতিত্বে এবং নায়েবে আমীর টঙ্গীর দারুল উলূম মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস মাওলানা রিয়াদুল ইসলাম মুনীরের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সেক্রেটারি জেনারেল জামিয়া মদীনাতুল উলূম আমিন বাজারের শিক্ষা সচিব ও সিনিয়র মুহাদ্দিস মুফতি আব্দুর রহীম কাসেমী।

মাওলানা সুলতান আহমাদ কাসেমীর কর্মময় জীবন নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন আফতাব উদ্দিন মাদরাসা মিরপুরের শাইখুল হাদীস মুফতি সাখাওয়াত হোসাইন, জামিয়াতুল আবরার কামরাঙ্গীরচরের শিক্ষা সচিব মুফতি আবুল হাসান, দারুল উলূম মাদরাসা মিরপুরের সিনিয়র মুহাদ্দিস মুফতি আনিসুর রহমান প্রমুখ।

তারা বলেন, মাওলানা সুলতান আহমাদ রহ. ছিলেন আমাদের শ্রদ্ধাভাজন উস্তায ও আদর্শ মানুষ গড়ার কারিগর। তাকওয়া ও ইসলাসের ক্ষেত্রে তিনি ছিলেন বে-নযীর ব্যক্তিত্ব। লৌকিকতামুক্ত নিরাহঙ্কারী এ আলেম সর্বদাই নিজেকে লুকিয়ে রাখতেন যা বর্তমানে বিরল। তা'লীম তারবিয়াতের পাশাপাশি তাযকিয়ার ময়দানে তিনি ছিলেন আকাবিরে দেওবন্দের যোগ্য উত্তরসূরি। তার ইন্তেকালে জাতি একজন শ্রেষ্ঠ সন্তানকে হারালো।

তারা আরও বলেন, পিরোজপুর উলামা পরিষদের জন্য তার প্রশংসনীয় অবদান অনস্বীকার্য। বটবৃক্ষের মতো ছায়া দিয়েছেন এ অঞ্চলের আলেমদেরকে। তার ইন্তেকালে বাংলার ইলমাকাশের একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র ঝরে পড়েছে। আমরা হারিয়েছি একজন নিবেদিতপ্রাণ মুখলিস অভিভাবককে। আল্লাহ তায়ালা যেন তাকে মাফ করে জান্নাতুল ফিরদাউসের উচ্চ মাকাম নসীব করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারকে সবরে জামীল ইখতিয়ার করার তাওফিক দান করেন, আমীন।

অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন হার্ট ফাউন্ডেশন মসজিদ মিরপুরের ইমাম ও খতীব মুফতি সিদ্দীকুর রহমান, দারুল হাবীব মাদরাসা মিরপুরের প্রিন্সিপাল মুফতি মুস্তাইন বিল্লাহ মাসুম, কাজীপাড়া আল্লাহ আকসা জামে মসজিদ মিরপুরের খতীব মুফতি মিজানুর রহমান, মাদরাসায়ে ইমদাদুল উলূম রূপনগরের প্রিন্সিপাল মুফতি ইমদাদুল হক, ইবনে কাসীর ক্যাডেট মাদরাসা ক্যান্টনমেন্টের প্রধান পরিচালক হাফেজ মাওলানা মুফতি মিরাজুল ইসলাম খান, পিরোজপুর ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস-এর সত্ত্বাধিকারী মাওলানা আতীকুর রহমান, বাইতুল আমান কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ মিরপুরের খতীব ও যাদুরচর মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস মুফতি আবদুল্লাহ ফিরোজী, শ্রীপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ আশুলিয়ার খতীব মাওলানা রেজাউল করিম, দারুল উলূম মহিলা মাদরাসা কদমতলীর প্রিন্সিপাল মুফতি হাবীবুল্লাহ মিসবাহ, নূরে মদীনা হিফজুল কুরআন মাদরাসা বনশ্রীর প্রিন্সিপাল মাওলানা ওমর ফারুক, নাজিরপুর উলামা পরিষদ মালিখালী ইউনিয়ন সেক্রেটারি হাফেজ মাওলানা দবির হোসাইন, মাওলানা আবু হানিফ, মুফতি গিয়াস উদ্দিন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সদ্য প্রয়াত উপমহাদেশের প্রখ্যাত হাদীস বিশারদ আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, খুলনার ঐতিহ্যবাহী খালিশপুর খাদেমুল ইসলাম মাদরাসার প্রিন্সিপাল এবং মোজাহেদে আজম আল্লামা শামসুল হক ফরিদপুরী (ছদর সাহেব হুজুর) রহ. এর দীর্ঘদিনের খাদেম হাফেজ মো. ফজলুল হক এবং মাওলানা সুলতান আহমাদ কাসেমীর রুহের মাগফেরাত কামনায় বিশেষ দোয়া করা হয়। এছাড়া পিরোজপুর উলামা পরিষদের পক্ষ থেকে মাওলানা সুলতান আহমাদ কাসেমী রহিমাহুল্লাহর অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় এবং তার সকল ছাত্রদেরকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে আহ্বান জানানো হয়। 

উল্লেখ্য, মাওলানা সুলতান আহমাদ কাসেমী গত (২৬ আগস্ট) বিকাল সাড়ে চারটায় খুলনার আড়াইশো বেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। তিনি স্ত্রী, দুই মেয়ে, অসংখ্য ছাত্র ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

-এইচএএম

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ